নোটবন্দীর ‘পর্দাফাঁস’, অমিত শাহ্‌ পরিচালিত ব্যাঙ্কে ৭৪৫.৫৯ কোটি! রাডাডিয়ার ব্যাঙ্কে ৬৯৩.১৯ কোটি

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

নোট  বাতিলের খবর বিজেপি নেতাদের কাছে বহুদিন আগেই ছিল এই অভিযোগ অনেক আগে থেকেই উঠে এসেছে, আছে কালো টাকা সাদা করে নেওয়ার অভিযোগ। সারাদেশে নোট নিয়ে হয়রানি, এটিএম এর সামনে দাঁড়িয়ে দীর্ঘ অপেক্ষায় অসুস্থ হয়ে একশোর বেশী মৃত্যু , লাখে লাখে কর্মহানি- বহু কিছুই দেশে ঘটে গেছে  গত কয়েক বছরে তবে সবচাইতে চমকপ্রদ খবরটা বোধহয় এতদিন আড়ালে ছিল যা বার করে এনেছেন মুম্বাইয়ের একজন সমাজকর্মী।  Manoranjan S. Roy নামক এই সমাজকর্মী তথ্যের অধিকার নিয়ে কাজ করছেন কয়েক বছর ধরে, তারই RTI এর উত্তরে এবার উঠে এসেছে এক বিস্ময়কর তথ্য!

এর আগে খবরটা কানাঘুষো শোনা গেলেও পরিষ্কার প্রমাণ ছিল না তবে এইবার হাতেনাতে মিলেছে প্রমাণ! ভারতীয় জনতা পার্টির সভাপতি অমিত শাহ পরিচালিত একটি অখ্যাত কো-অপারেটিভ ব্যাংকেই  সবচাইতে বেশি পুরানো নোট জমা পড়েছে এমনটাই জানা যাচ্ছে তথ্যের অধিকার থেকে!  সারাদেশে অনেক বড় বড় ব্যাংক থাকতেও আমেদাবাদের একটি অনামী কো-অপারেটিভ ব্যাংক যার  ডিরেক্টর কিনা স্বয়ং বিজেপি প্রেসিডেন্ট অমিত শাহ, সেই ব্যাংকেই জমা পড়েছে ৭৪৫.৫৯ কোটি টাকা। আরও অবাক করা ব্যাপার হল- ওই টাকা জমা পড়েছে নোটবন্দী ঘোষণার মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যেই ।

ভিডিওঃ বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ পরিচালিত একটি অখ্যাত কো-অপারেটিভ ব্যাংকেই  সবচাইতে বেশি পুরানো নোট জমা পড়েছে!- জাতীয় কংগ্রেসের প্রেস কনফারেন্স   

 

The Ahmedabad District Cooperative Bank (ADCB) -তে  ৮ই নভেম্বর নোটবন্দী ঘোষণার ঠিক পাঁচ দিন পরে অর্থাৎ ১৪ ই নভেম্বর তারিখের মধ্যে ঐ বিপুল  অর্থ জমা পড়ে। প্রসঙ্গতঃ জেলা কোওপারেটিভ ব্যাঙ্ক গুলিতে পুরনো currency নোট নেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয় ১৪ই নভেম্বর।ব্যাংকগুলির মাধ্যমে কালো টাকা সাদা করা হতে পারে -এই কারণ দেখিয়ে বন্ধ করা হয় ডিপোজিট এর ব্যবস্থা কিন্তু খুব আশ্চর্যজনকভাবে ওই পাঁচ দিনের ভেতরই ৭৪৫.৫৯ কোটি টাকা জমা পড়ে ওই ব্যাংকে।

 ভিডিওঃ নোটবন্দীর আসল উদ্দেশ্য কি? দেখুন যা মিডিয়া আপনাকে দেখায়নি 

 

ADCB র ওয়েবসাইটে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী অমিত শাহ বহু বছর ধরেই ওই ব্যাংকের ডিরেক্টর পদে নিযুক্ত আছেন এমনকি 2000 সালে তিনি ওই ব্যাংকের চেয়ারম্যানও  ছিলেন তিনি। আশ্চর্যজনক  ভাবে আমেদাবাদ ডিসট্রিক্ট কোওপারেটিভ ব্যাঙ্কের পরই  সবচাইতে বেশি অর্থ যে ব্যাংকে জমা পড়েছে সেখানেও উঠে আসছে আর একজন বিজেপির কেবিনেট মন্ত্রীর নাম। জয়েশভাই ভিটঠলভাই রাডাডিয়া– গুজরাট মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানির মন্ত্রিসভার সদস্য বর্তমানে  Rajkot District Cooperative Bank এর চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত আছেন আর চমকপ্রদ তথ্য হল ওই ব্যাংকেই জমা পড়েছে ৬৯৩.১৯ কোটির পুরনো নোট। প্রসঙ্গক্রমে রাজকোটই  হল গুজরাট বিজেপির প্রাণকেন্দ্র। মুম্বাইয়ের সমাজকর্মী Manoranjan S. Roy কে National Bank for Agriculture & Rural Development  (NABARD) এর জেনারেল ম্যানেজার RTI এর মাধ্যমে এই তথ্য দিয়েছেন। এছাড়াও RTI জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে সাতটা Public Sector Bank-এ  ৭.৫৭ কোটি টাকা জমা পড়েছে যা মোট জমা পড়া টাকার 50%।

ভিডিওঃ বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ পরিচালিত একটি অখ্যাত কো-অপারেটিভ ব্যাংকেই  সবচাইতে বেশি পুরানো নোট জমা পড়েছে!- আম আদমি পার্টির নেত্রীর ফেসবুক লাইভ  

 

 

One thought on “নোটবন্দীর ‘পর্দাফাঁস’, অমিত শাহ্‌ পরিচালিত ব্যাঙ্কে ৭৪৫.৫৯ কোটি! রাডাডিয়ার ব্যাঙ্কে ৬৯৩.১৯ কোটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *