আফ্রিকান কুমার শানু! ১৪ লক্ষ দর্শক, ইউটিউবে ভাইরাল হচ্ছে এই নতুন গায়কের গান !

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

একদা বলিউড কাঁপানো জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী কুমার শানু কে আজ বোধহয় চেনেন না এমন কোন বাঙালি নেই । বাংলার গণ্ডি ছাড়িয়ে তার জনপ্রিয়তা সারা ভারতবর্ষে তবে ভারতের বাইরেও আছে তার প্রচুর গুণগ্রাহী ।  একের পর এক ব্লকবাসটার  হিন্দি ছবিতে এক সময় গান গেয়েছেন শানু আর তার গানে মোহিত  হয়ে গেছে সারা ভারত বর্ষ । তবে দেশের কুমার শানু কে তো চেনেন কিন্তু চেনেন কি ‘আফ্রিকান কুমার শানু’ কে?!  হ্যাঁ আফ্রিকান কুমার শানু এখন ইউটিউবে ভাইরাল! তবে এ  নাম জনগণের দেওয়া নয় তিনি নিজেই রেখেছেন এই নাম।

এই আফ্রিকান কুমার শানু অবিকল কুমার শানুর মত  গান গাইতে পারেন। সাউনড ট্র্যাকের সাথে কুমার শানুর মতো গলার আওয়াজ করে প্রায় কুমার শানুর মতো মুখের ভাবভঙ্গি ও নকল করে ফেলেছেন এই গায়ক! তবে দেখতে একফোঁটাও মিল নেই তার শানুর সাথে । তার এই শানু প্রীতি আজকের নয় প্রায় 2015 সাল থেকেই শানুর গান গাইছেন এই যুবক। ইউটিউবে তার প্রথম গানটি ছিল “ছুপা না ভি নেহি আতা” যা শাহরুখ খানের বাজিগর ছবির গান তবে এটি কুমার শানুর গাওয়া নয় বরং গানটি গাওয়া বিনোদ রাঠোর! এ থেকে আরও একটি বিষয় পরিষ্কার হয় যুবক আসলে পুরানো দিনের বলিউডি হিন্দি গানের ভক্ত। প্রথম দিকে তেমন দর্শক না হলেও মাস দুয়েক আগে তার গাওয়া কুমার শানুর ‘টিপ টিপ বর্ষা পানি’ গানটি প্রচণ্ড ভাইরাল হয়ে যায় এছাড়াও ‘রাজা কো রানি সে পেয়ার হো গায়া’   ‘অ্যায়সি দিওয়ানগি দেখি নাহি কাহি’ ‘ শাঁসো  কি জারুরাত হায় জেয়সে’  ‘কিসি রোজ তুমসে মুলাকাত হোগি” ইত্যাদি গান ইউটিউবে দারুন রকমের সাড়া ফেলেছে।

‘আফ্রিকান’ নাম হলেও আসলে  এই যুবক ভারতবর্ষের বাসিন্দা। বংশসূত্রে আফ্রিকান তবে এখন ইনি আদ্যন্ত ভারতীয়, আবাস পুনেতে। খড়গপুর আই আই টি থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পাস করে এখন  ইউটিউব সেলিব্রিটি”। বিশাল চৌবে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন – মহাত্মা গান্ধীর সাথে যখন প্রচুর অভিবাসী এদেশে এসেছিলেন তখনই ভারতে এসেছিলেন তার পূর্বপুরুষেরা। তিনি এদেশে তার পরিবারের পঞ্চম পুরুষ তাই যেকোনো হিন্দিবাসীর মতই পরিষ্কার হিন্দি বলতে পারেন। কেন এই “আফ্রিকান শানু” নাম? ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে উঠে এসেছে তার গলায় দুঃখের  স্বর। প্রথমেই আফ্রিকান নাম নেননি তিনি কিন্তু  আশপাশের মানুষজন
‘আলকাতরা’ ‘কালু’ ‘আফ্রিকান’ ‘কালিচরণ’ ইত্যাদি নামে তাকে ব্যঙ্গ করে ডাকত আর ঠিক  তখনই  তিনি খুজছিলেন একটা Stage Name আর ঠিক  তখনই মাথায় আসে “আফ্রিকান কুমার শানু” নামটি। কুমার শানু কেই কেন ভাল লাগে এই প্রশ্নের উত্তরে জানালেন যে,- দেশের কৃষক, মজু্‌ দুঃখী মানুষের বেদনা তিনি কুমার শানুর গানেই খুঁজে পেয়েছেন ।গান গাওয়ার সময় তার মাথায় ব্যান্ড দিয়ে একটি সবুজ পেন লাগানো থাকে। প্রশ্ন করাতে জানালেন যে পেন আসলে মা স্বরস্বতীর আশীর্বাদ আর সবুজ রং উন্নতির প্রতীক।

 

আফ্রিকান কুমার শানুর ফেসবুক পেজঃ  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *