স্বতঃস্ফূর্ত মানব দহন (spontaneous human combustion)

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

স্বতঃস্ফূর্ত মানব দহন বা “স্পনটেনিয়াস হিউম্যান কম্বাসশণ” (spontaneous human combustion) সম্ভবত দেহবিজ্ঞানের সব চাইতে রহস্যময় ঘটনাগুলির একটি। যদিও এই ঘটনা খুবই বিরল কিন্তু এ ঘটে যেতে পারে আপনার সাথেও! ব্যপারটা ঠিক কি? ধরুন সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে খবরের কাগজটা নিয়ে কেউ বসে আছেন পূবের জানলাটার ধারে তখনই ঘটে গেল ব্যাপারটা, গ্যাস নেই দেশলাই নেই, শর্ট সার্কিট নেই হঠাৎ করে আগুন ধরে গেল আপনার গায়ে। হ্যাঁ এমনটাই ঘটেছিল লন্ডনের এক মহিলার সাথে নাম -জিয়ানি সাফিন, চেয়ারে বসে থাকতে থাক্তেই আগুন ধরে যায় তার সারা শরীরে। মহিলার বাবা ছিলেন প্রত্যক্ষদর্শী, তার বয়ান অনুযায়ী জিয়ানির হাট এবং চোখের কনা থেকে আলোর ঝলকানি দেখাদেয় এবং মুহূর্তের মধ্য আগুন ধরে যায় তার শরীরে, ছিতকার করার বা নড়াচড়া করার সময়টুকুও সে পায় না। পুলিশ তদন্ত শুরু করলে এই অগ্নিসংযোগের কোন কারণ খুঁজে পায়না, এমনকি জিয়ানির দেহ বাদ দিয়ে দহনের আর কোন চিহ্নই ঘরে পাওয়া যায়না । এটি কোন একক ঘটনা নয় এই রকম একাধিক (SHC) ঘটনার বিবরণ পাওয়া যায় যেখানে হঠাৎ করে আগুন ধরে যেতে দেখা গেছে মানুষের শরীরে, বিজ্ঞানীরা এর নানা রকম বাহ্যিক কারণও দেখানোর চেষ্টা করেছেন কিন্তু তবুও এই রহস্য আজও অধরা রয়ে গেছে।

স্বতঃস্ফূর্ত মানব দহনে মারা যান জিয়ানি সাফিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *